ইসলামী পোশাক নিষেধ করায় হাইকোর্টে রিট

2015_09_17_14_05_09_TZP1H5wPgonylzM4960LzPFQdFRbrn_originalরাজধানীর বেসরকারী ইউনির্ভাসিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড এগ্রিকালচার টেকনোলজি (আইইউবিএটি)র ছাত্র-ছাত্রীদের ইসলামী পোশাকের ওপর নিষেধ থাকায় হাইকোর্টে একটি রিট মামলা দায়েল করা হয়েছে। রিটে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান, ঢাকা জেলার শিক্ষা অফিসার, আইইউবিএটির ভিসি ও রেজিস্ট্রারকে বিবাদী করা হয়েছে। সুপ্রিমকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র রানা পারভেজসহ ৭ শিক্ষার্থীদের পক্ষে রোববার সকালে রিট আবেদনটি করেন আইনজীবী অ্যাডভোকেট জাফর আলী । জানতে চাইলে আইনজীবী বলেন, আবেদনে শিক্ষার্থীরা যাতে ইসলামী পোশাক (পাজামা,পাঞ্জাবী,রোরকা,হিজাব) পড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে সকল কাজে অংশ গ্রহণ করতে পারে তার নির্দেশনা চেয়েছি। উক্ত প্রতিষ্ঠানের নির্ধারিত ড্রেসকোডের বৈধতা চ্যালেঞ্জও করা হয়েছে। তার আগে গত ২৫ অক্টোবর থেকে বোরকা, নেকাব, পাঞ্জাবী, পায়জামা, টুপি, পাগড়ী পড়িহিত সমস্ত ছাত্র- ছাত্রীদের ভার্সিটিতে প্রবেশ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, উত্তরার ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটি অফ বিজনেস এগ্রিকালচার এন্ড টেকনোলোজি বিশ্ববিদ্যালয়ে আইইউবিএটি (ওটইঅঞ) বিশ্ববিদ্যালয়ে ইসলামিক পোশাক নিষিদ্ধ করা হয়েছে বলে দাবি করেছে শিক্ষার্থীরা। এর প্রতিবাদে গত ২৭ অক্টোবর মঙ্গলবার বেলা ১১টায় তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল গেটে মানববন্ধন করেন। এছাড়া গত ২৯ অক্টোবর শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ধর্মীয় পোশাকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস করার দাবিতে মানববন্ধন করে ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অফ বিজনেস এগ্রিকালচার এন্ড টেকনোলজি বিশ্ববিদ্যালয়ের (আইইউবিএটি) শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই ইসলামী পোশাকের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করেছে। পাঞ্জাবি টুপিওয়ালা বা বোরকায় আবৃত নারীদের প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। শিক্ষার্থীরা আরো জানান, উপাচার্য ড. এম আলিমুল্লাহ মিয়ানের নির্দেশে এ কঠোরতা আরোপ করা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, সব প্রতিষ্ঠান সাধারণত যাবতীয় নিয়ম কানুন ভর্তির সময় জানিয়ে দেয়। কিন্তু আইএইবিএটি হঠাৎ করে এমন সিদ্ধান্ত নেয়ায় অনেক শিক্ষার্থীর কাছে তা মানা সম্ভব নয়। কারণ অনেক শিক্ষার্থী জন্মগতভাবেই ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলেন। তাদের দাবি, হঠাৎ করে কোনো প্রতিষ্ঠান পোশাক নিয়ে এমন কঠোরতা দেখাতে পারেন না। এমনটি করতে চাইলে অবশ্যই সুষ্পষ্ট নীতিমালা প্রয়োজন। এর আগে গত ২১ মার্চ ২০১২ সালে রাষ্ট্রপতির কার্যালয় থেকে আইইউবিএটি এর ভিসি বরাবর একটি চিঠি পাঠানো হয়, তাতে উল্লেখ করা হয় শিক্ষার্থীদের যেন ধর্মীয় পোশাক পরিধানে বাধা দেয়া না হয়।

Share and Enjoy

  • Facebook
  • Twitter
  • Delicious
  • LinkedIn
  • StumbleUpon
  • Add to favorites
  • Email
  • RSS





Related News

  • চেতনানাশক ঔষধসহ অজ্ঞান ও মলম পার্টির ৮ সদস্যকে গ্রেফতার
  • ৪০ লাখ টাকার স্বর্ণসহ মালয়েশিয়াগামী যাত্রী আটক
  • ট্রাইব্যুনালের হাজতখানায় তিন ভাই, রায় আজ
  • ঢাকা আইনজীবী সমিতিতে ২৭টি পদের মধ্যে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ২১টি পদে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থকরা
  • দুই বছর আট মাস পর জেলহত্যা মামলার আপিলের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ
  • নিজামীর আপিল শুনানি শেষ : ৩০ নভেম্বর থেকে যুক্তিতর্ক শুরু
  • ছাত্রী ধর্ষণের মামলায় অভিযুক্ত শিক্ষক পরিমলের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড
  • নাশকতার মামলায় মির্জা ফখরুলের জামিন
  • Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
    Email
    Print