জাতীয় পরিচয়পত্রের আইডি নম্বরের অর্থ

nidবাংলাদেশি নাগরিকদের মধ্যে যারা প্রাপ্ত বয়স্ক তাদের সবারই জাতীয় পরিচয় পত্র রয়েছে। অনেকেই এটাকে আইডি ভোটার আইডি কার্ড হিসেবে জেনে থাকে। তবে যারা এটাকে ভোটার আইডি কার্ড হিসাবে জেনে থাকেন তারা ভুল জানেন।

মূলত এটা জাতীয় পরিচয় পত্র। যা সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন কাজে ব্যবহৃত হয়। পাঠক, একটু লক্ষ্য করলে দেখবেন জাতীয় পরিচয়পত্রের নীচের দিকে লাল রংয়ের কালি দিয়ে লেখা ১৩ সংখ্যার একটা নম্বর আছে যাকে আমরা আইডি নম্বর হিসাবে জানি। কিন্তু এই ১৩ সংখ্যার মানে কি? তাহলে জেনে নিন

১) প্রথম দুই সংখ্যা: জেলা কোড। ৬৪ জেলার আলাদা আলাদা কোড আছে। ঢাকার জন্য এই কোড ২৬।

২) পরবর্তী এক সংখ্যা: এটা আরএমও (RMO) কোড। সিটি কর্পোরেশনের জন্য ৯, ক্যান্টনমেন্ট ৫, পৌরসভা ২, পল্লী এলাকা ১। পৌরসভার বাইরে শহর এলাকা ৩, অন্যান্য ৪।

৩) পরবর্তী দুই সংখ্যা: এটা উপজেলা বা থানা কোড।

৪) পরবর্তী দুই সংখ্যা: এটা ইউনিয়ন (পল্লীর জন্য) বা ওয়ার্ড কোড (পৌরসভা বা সিটি কর্পোরেশনের জন্য)।

৫) শেষ ছয় সংখ্যা: আইডি কার্ড করার সময় আপনি যে ফর্ম পূরণ করেছিলেন এটা সেই ফর্ম নম্বর।

বর্তমানে আবার ১৭ ডিজিটের আইডি কার্ড দেয়া হচ্ছে যার প্রথম চার ডিজিট হচ্ছে জন্ম সাল।

Share and Enjoy

  • Facebook
  • Twitter
  • Delicious
  • LinkedIn
  • StumbleUpon
  • Add to favorites
  • Email
  • RSS





Related News

  • গার্মেন্টস সেক্টরকে ছাড়িয়ে যাবে আইটি সেক্টর : পলক
  • হাতের আঙুলের ছাপ দিয়ে সিম নিবন্ধনের সময় বাড়ানোর দাবি
  • জাতীয় পরিচয়পত্রের আঙুলের ছাপ হালনাগাদ করা যাবে
  • জাতীয় পরিচয়পত্রের আইডি নম্বরের অর্থ
  • জয়ের প্রত্যক্ষ ভূমিকায় খুলে দেওয়া হয়েছে ফেসবুক
  • আউটসোর্সিং আয়ের অন্যতম উপখাত :সজীব ওয়াজেদ জয়
  • ‘আলোচনা ফলপ্রসূ, শিগগিরই খুলবে ফেসবুক’
  • ফেসবুকের দুই কর্মকর্তা ঢাকায় : আজ বৈঠক
  • Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
    Email
    Print