ফেনীতে হাসপাতাল মোড়ে সিএনজি থামিয়ে টোল আদায় থামছে না

আবু ইউসুফ মিন্টু :
ফেনীর ব্যস্ততম পরিবহন টার্মিনাল হাসপাতাল মোড়। প্রতিদিন পরশুরাম, ফুলগাজী, আনন্দপুর, মুন্সিরহাট, বন্ধুয়া ও ছাগলনাইয়া উপজেলা থেকে শত শত সিএনজি, বাস, ইমা সহ বিভিন্ন যাত্রীবাহী পরিবহন ফেনী শহরে ঢুকতেই থমকে যেতে হচ্ছে। পরশুরাম, ছাগলনাইয়া সড়কের নিত্যযাত্রীরা সাময়িক ভোগান্তিতে পড়তে হলেও জরুরী রোগীবাহী ও সিএনজির নতুন যাত্রীদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। হাসপাতাল মোড় থেকে প্রায় ৩-৪শ গজ উত্তরে প্রকাশ্যে হাতে লাঠি নিয়ে মাথায় ক্যাপ পরা ৭-৮ জন যুবক দাঁড়িয়ে থাকে। সিএনজি দেখামাত্রই গাড়ীর দিকে দৌড়ে গিয়ে গাড়ী থামিয়ে দেয়। প্রাথমিকভাবে দেখে মনে হয় গাড়ীতে হামলা চালাচ্ছে। এতে শিশু সহ নতুন মহিলা যাত্রীদের মাঝে ভয়ের সৃষ্টি হয়। এছাড়াও দীর্ঘসময় যানজটের সৃষ্টি হয়।
রিয়া এক্সপ্রেসের চালক গতকাল মঙ্গলবার অভিযোগ করেন, স্ট্যান্ডে ঘন্টার পর ঘন্টা সিরিয়াল দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকলেও সেখানে টোল আদায় করতে যায়না। কিন্তু শহরে ঢুকতে এবং শহর থেকে বাহির হতে গেলে তারা চলন্ত গাড়ী থামিয়ে টোল আদায় করে। ওই চালক অভিযোগ করেন, টোল দেয়ার পরও প্রতিদিন একাধিকবার তারা যাত্রীবাহী চলন্ত সিএনজি থামিয়ে টোলের রসিদ চেক করেন। থামতে দেরি হলেই লাঠি দিয়ে সিএনজিতে আঘাত করেন।
পরশুরাম ফুলগাজী, মুন্সির হাট বন্ধুয়ার একাধিক সিএনজি চালক অভিযোগ করেন, হাসপাতালে মোড়ে টোল আদায়কারীদের লাঠির আঘাতে অসংখ্য সিএনজির লুকিং গ্লাস ভেঙ্গে ফেলেছে। প্রতিবাদ করলে তারা বিভিন্নভাবে হয়রানি ও চালকদের মারধর করে।
একটি সূত্রে জানা গেছে, জেলার সর্বোচ্চ আইনশৃংখলা বিষয়ক কমিটিতে একাধিকবার বিষয়টি উত্থাপিত হয়েছে। বিভিন্ন জনপ্রতিনিধি ও যাত্রীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ফেনী জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার রাস্তায় টোল আদায়ের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন।
জেলা প্রশাসক একাধিকবার ইজরাদারদেরকে চলন্ত গাড়ী থামিয়ে টোল আদায় বন্ধের নির্দেশনা দিয়েছেন। কিন্তু ইজারাদারা তা মানছেন না। তারা প্রতিদিন জরুরী রোগীবাহী সিএনজি সহ সবধরনের সিএনজি থামিয়ে টোল আদায় করছে। যাত্রী-চালকরা প্রতিবাদ করলে তাদের গালিগালাজ করতে দেখা যায়।
প্রত্যাক্ষদর্শী একাধিক যাত্রী অভিযোগ করেন, ফেনী শহরে ঢুকতেই লাঠি হাতে যুবকরা গাড়ীর দিকে তেড়ে যাওয়ার সময় প্রথমে দেখে ভয় লাগে। সিএনজি চালকেরা লাঠি হাতে ধাকা যুবকদের একজনকে পাশ কাটিয়ে গেলেও পরপর আরো কয়েকজন গাড়ী থামাতে ছুটে আসেন।
গতকাল দুপুরে সরেজমিনে দেখা গেছে, পরশুরাম থেকে একটি সিএনজিতে ফেনী যাবার পথে হাসপাতাল মোড় থেকে ৪শ গজ উত্তরে লাঠি হাতে দুই দিক থেকে দুই যুবক চলন্ত গাড়ীর দিকে তেড়ে গিয়ে গাড়ী থামিয়ে টোল আদায় করেন। এসময় এক যাত্রী চলন্ত গাড়ী থামিয়ে টোল আদায় করার উপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে তা জানে কিনা জানতে চাইলে ওই যুবক বলেন, এই টোলের টাকা বড় বড় নেতা ও প্রশাসনের বড় কর্তারা পায়। রাস্তায় টোল আদায় করতে কেউ কখনো তাদের নিষেধ করেনি।
পরশুরাম উপজেলা সিএনজি চালক সমিতির সভাপতি মো: বাদল জানান, রাস্তায় সিএনজি থামিয়ে টোল আদায় না করতে তাদের একাধিকবার অনুরোধ করা হলেও তারা তা মানছেনা।

Share and Enjoy

  • Facebook
  • Twitter
  • Delicious
  • LinkedIn
  • StumbleUpon
  • Add to favorites
  • Email
  • RSS





Related News

  • চরছান্দিয়ায় ৫ম শ্রেনীর ছাত্রীকে যৌন হয়রানির ঘটনায় বখাটে গ্রেফতার
  • ফেনী শহরের বেশীর ভাগ সড়কের বেহাল দশা, জনদুর্ভোগ বাড়ছে
  • বাংলাদেশের সকল মন্ত্রী ও সাংসদ (এম.পি ) মহোদয়দের নাম ও মোবাইল নাম্বার
  • ২০১৯ সালের নির্বাচনে নৌকাকে বিজয়ী করতে হবে- নিজাম হাজারী এমপি
  • ফেনীতে বিপুল পরিমান অস্ত্রও গুলিসহ আন্ত:জেলা ডাকাত সদস্য আটক
  • আলাউদ্দিন চৌধুরী নাসিম কলেজে শিক্ষার মানোন্নয়নের লক্ষে অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠিত
  • পরশুরামে বিশ্ব পরিবেশ দিবস-২০১৭ উদযাপন
  • ফুলগাজীর স্কয়ার হাসপাতালের কর্মকর্তার বিরুদ্ধে থানায় নার্সের শ্লীলতাহানির অভিযোগে
  • Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
    Email
    Print