ফেনীর বা‌লিগাঁও আ:লীগ প্রার্থীকে ঠেকাতে মাঠে নেমেছে জেলা যুবলীগ নেতা শুসেন শীল

13263946_611864972321872_2085800616437756367_n

ফেনী প্রতিনিধি :

ফেনীতে বিভিন্ন উপজেলায় শেষ  করা  ইউপি নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীদের দলীয় মনোনয়ন তুলে দিয়ে ফেনী-২ আসনের সাংসদ নিজাম হাজারী দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্যেশ্যে কঠিন হুশীয়ারী উচ্চারন করে বক্তব্য দিতেন দলীয় প্রার্থীর বিরোদ্বে কাজ করলে কঠিন ব্যবস্থা নেয়া হবে. ছাগলনাইয়া দলীয় প্রার্থীর বিরোদ্বে কাজ করলে গুলি করার হুমকী দেয়ার অভিযোগে  উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরোদ্বে মামলাও হয়েছে।  কিন্তু এবার ফেনীর বালিগাও ইউনিয়নে উল্টো চিত্র দেখা যাচ্ছে বাহার  দলীয় মনোনয়ন পেলেও অনেকটা প্রকাশ্যেই দলীয় প্রার্থীর বিরোদ্বে কাজ করছেন নিজাম হাজারী ঘনিষ্টজন বলে পরিচিত জেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক শুষেন চন্দ্র শীল এই নিয়ে জেলা আ লীগের রাজনীতিতে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠে।
দলীয় প্রতীকে প্রথমবারের মত চলমান এবারের ইউপি নির্বাচনে যেখানে সারাজেলায় নৌকার প্রার্থীদের জয়ী করতে সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের প্রাণান্ত চেষ্টা সেখানে কেবল উল্টো চিত্র সদর উপজেলার বালিগাঁও ইউনিয়নে। নৌকা ঠেকাতে এখানে দলের একটি অংশ কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছে। শুরুতে নেপথ্যে থেকে কলকাঠি নাড়লেও গত ক’দিন প্রকাশ্যেই নৌকার বিপক্ষে বিদ্রোহী প্রার্থীর আনারস প্রতীকের প্রচার-প্রচারণায় মাঠে নেমেছেন জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শুসেন চন্দ্র শীল। ফেনীর আওয়ামী রাজনীতির গুরুত্বপূর্ণ এ নেতা দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে স্বয়ং মাঠে নামায় দলীয় নেতাকর্মীরা বিপাকে পড়েছেন। সেই সাথে হুমকি-ধমকিরও অভিযোগ রয়েছে অহরহ। শুধু তাই নয় বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মীদেরও আনারস প্রতীকের পক্ষে প্রচারনায় নামতে বাধ্য করা হচ্ছে।
সরেজমিন শহরতলীর এ ইউনিয়ন ঘুরে দেখা যায়, যেখানে সারা জেলায় নৌকার দাপটে ধানের শীষসহ অন্য প্রার্থীরা অসহায় সেখানে ব্যতিক্রম বালিগাঁও। এখানে বরং নৌকার প্রার্থী সহ তার সমর্থকরা সবসময় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা ছাত্রলীগের একসময়ের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক বাহার এ ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী। অন্যদিকে তাকে ঠেকাতে দলের একাংশ ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদকে সমর্থন দিয়েছেন। বিশেষ করে গত ক’দিন জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শুসেন চন্দ্র শীল বিদ্রোহী প্রার্থীর আনারস প্রতীকের পক্ষে প্রকাশ্য প্রচার-প্রচারনায় নামায় স্থানীয় নেতাকর্মীদের একাংশ নৌকা বিরোধী প্রচারনায় সরব। এদের মধ্যে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক কামাল উদ্দিন, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুর শুক্কুর মানিক, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জিয়াউদ্দিন বাবলু, ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: জহির সক্রিয় রয়েছেন।
অন্যদিকে দলীয় প্রার্থী বাহারকে নিয়ে মাঠে রয়েছেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি জিয়াউল হাসান চৌধুরী কায়েস, সদর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক করিম উল্লাহ আজাদ ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হানিফ কিরন।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় একাধিক আওয়ামীলীগ নেতা জানান, দলের ত্যাগী নেতা হিসেবে পরিচিত বাহারকে জেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে মনোনয়ন দেয়ায় নেতাকর্মীরা যেমন সন্তুষ্ট তেমনি ভিন্ন দলের কাছেও রয়েছে তার জনপ্রিয়তা। বাহারকে সমর্থন দিয়ে ভিন্ন দলের নেতাকর্মীরাও এখানে এবার নৌকায় ভোট দেবে। এটা স্থানীয় রাজনীতিতে আওয়ামীলীগের এক ধরনের বিজয়। তবে এ বিজয়ে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে নিজ দলের একটি অংশ। জেলা যুবলীগের প্রভাবশালী নেতা শুসেন শীলের বিরাগভাজন হওয়ায় তিনি বিগত নির্বাচনে যেমন দলীয় মনোনয়ন বঞ্ছিত হয়েছেন তেমনি এবারের নির্বাচনে আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে মনোনয়ন পেয়েও দলের একাংশের বাধার মুখে পড়েছেন। এলাকায় নৌকার পোষ্টার-ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলা ছাড়াও প্রচার-প্রচারনায় রীতিমত বাধা দেয়া হচ্ছে। এছাড়া দলীয় নেতাকর্মীদেরও হুমকি-ধমকি এমনকি পুলিশি হয়রানীর ভয় দেখানো হচ্ছে। এসব বিষয়ে জেলা-উপজেলা নেতাদের অবহিত করা হচ্ছে বলে তারা জানান।
তাদের মতে, চলমান ইউপি নির্বাচনে বিএনপি অধ্যুষিত এ জেলায় জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপির নেতৃত্বে দলের বিদ্রোহ কঠোর হস্তে দমন করায় এর সুফল পাচ্ছে আওয়ামীলীগ। শুধু চেয়ারম্যান নয়, মেম্বার পদেও আওয়ামীলীগ সমর্থিতদের জয়জয়কার। সেখানে বালিগাঁও ইউনিয়নের উল্টো চিত্র নিয়ন্ত্রন না করলে জেলা আওয়ামীলীগ প্রশ্নবিদ্ধ হবে।
অপরদিকে আনারস মার্কার সমর্থকদের দাবী, চেয়ারম্যান থাকাকালীন বাহার কোন ধরনের উন্নয়ন না করায় এলাকায় জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন। এছাড়া দলীয় কর্মকান্ডেও তার কোন ভূমিকা নেই। কেন্দ্রে তদবীর করে দলীয় মনোনয়ন পেলেও স্থানীয় নেতাকর্মীরা তাকে মানতে পারছে না। অন্যদিকে আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পর বালিগাঁওতে শুসেন চন্দ্র শীলের নেতৃত্বে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। তাই তার নির্দেশনা অনুযায়ী দল ও এলাকার স্বার্থে তরুন প্রার্থী আবুল কালাম আজাদের আনারস প্রতীককে জয়ী করতে দলীয় নেতাকর্মীরা কাজ করছে।
এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুর রহমান বি.কম   বলেছেন, জেলা ও কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে মোজাম্মেল হক বাহারকে নৌকার মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। সেক্ষেত্রে নৌকার বিপক্ষে অবস্থান নেয়া দলীয় শৃঙ্খলার পরিপন্থি। এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপি শীঘ্রই সিদ্ধান্ত দিবেন বলে তিনি জানান।

Share and Enjoy

  • Facebook
  • Twitter
  • Delicious
  • LinkedIn
  • StumbleUpon
  • Add to favorites
  • Email
  • RSS





Related News

  • ব্যারিস্টার মইনুল গ্রেপ্তার
  • সাইবার ট্রাইব্যুনাল এক দিনেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ৭ মামলা
  • বিএমডব্লিউ গাড়ি পেয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা।
  • ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা বাবর-পিন্টুসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, তারেক-হারিছের যাবজ্জীবন
  • সকালে মৃত্যু, বিকালে গেল মুক্তির আদেশ,১৩ বছর জেল খাটার পর প্রমাণিত হলো তিনি নির্দোষ
  • নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে নতুন চিন্তা ক্ষমতাসীনদের
  • তফসিলের আগেই খালেদার মুক্তি চায় বিএনপি
  • বি. চৌধুরী-ড. কামালকে আমন্ত্রণ জানাতে পারে বিএনপি
  • Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
    Email
    Print