বেতন কাঠামোয় ‘বৈষম্য ও অসঙ্গতি’ নিরসণের দাবিতে বৃহস্পতিবারও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে কর্মবিরতি চলছে

pay-scale_10780স্বতন্ত্র বেতন কাঠামোয় ‘বৈষম্য ও অসঙ্গতি’ নিরসণের দাবিতে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি চালিয়ে যেতে অনড় অবস্থানে রয়েছেন শিক্ষকরা। বৃহস্পতিবারও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে কর্মবিরতি চলছে। শিক্ষকরা বলছেন, দাবি পূরণে এখনও সরকার কোনো আশ্বাস দেয়নি। দাবি না মানা পর্যন্ত এই লাগাতার কর্মবিরতি চলতেই থাকবে।

সরকার দাবি পূরণ করলেই শিক্ষকরা আন্দোলন প্রত্যাহার করে ক্লাসে ফিরে যাবেন। এদিকে একটি সূত্র বলছেন, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় আলোচনা বসায় একটি উদ্যোগ নিতে পারে। তবে এই বসা না বসা নির্ভর করছে আমলাদের সঙ্গে বসা না বসার উপর। আন্দোলনরত শিক্ষকদের একটি বড় অংশ আমলাদের সঙ্গে আলোচনা করতে রাজি নয়।

তবে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় উদ্যোগ নিলে কিছুটা নমনীয়তা দেখাতে চান শিক্ষকরা। এক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় শিক্ষকদের নমীয়তাও দেখতে চান। আন্দোলন শিক্ষকদের সঙ্গে সরকারের তরফে আলোচনার কোনো উদ্যোগ এখনও পর্যন্ত দেখা যায়নি।

মঙ্গলবার বিকালে কেবল শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ব্যক্তিগতভাবে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের শীর্ষ দুই নেতার সঙ্গে বৈঠক করেন। তবে ওই বৈঠক কোনো আনুষ্ঠানিক বৈঠক ছিল না। সেখানে স্বাভাবিকভাবেই কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি। শিক্ষা মন্ত্রণালয় এ সমস্যা সমাধানের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের দিকে তাকিয়ে আছে।

বুধবার বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের মহাসচিব অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল বলেন, তারা ক্লাসে ফিরতে চান। তাদের দাবি যদি আজকে মেনে নেয়া হয়, তাহলে তারা আজকেই ক্লাসে ফিরে যাবেন। এখন পর্যন্ত সরকারের তরফ থেকে কোন যোগাযোগ হয়নি। তিনি বলেন, কিছু গণমাধ্যমে বেরিয়েছে শিক্ষকরা তাদের দাবি থেকে পিছিয়ে এসেছেন যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।

আন্দোলন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তারা শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন। তিনি বলেছেন, অর্থমন্ত্রণালয় থেকে সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত এটা সম্ভব হবে না। তাহলে তারা ধরে নেবেন, তাদের আন্দোলন যদি দির্ঘায়িত হয় কিংবা দাবি না মানা হয়, তাহলে এর পেছনে অর্থমন্ত্রীর হাত আছে। শুধু অর্থের জন্য তারা আন্দোলন করছেন না। বিশ্ববিদ্যাল শিক্ষক হিসেবে যে মর্যাদা দরকার সেই মর্যাদার জন্য তারা আন্দোলন করছি।

দাবি আদায় না হওয়ায় দেশের ৩৭টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকরা কর্মবিরতিতে যাওয়ায় কার্যত অচল হয়ে পড়েছে শিক্ষা কার্যক্রম। অষ্টম জাতীয় বেতন কাঠামোয় অসন্তোষ জানিয়ে আন্দোলন করছেন কলেজ শিক্ষকরাও।

Share and Enjoy

  • Facebook
  • Twitter
  • Delicious
  • LinkedIn
  • StumbleUpon
  • Add to favorites
  • Email
  • RSS





Related News

  • বাংলাদেশের অনুরোধে সাড়া দিয়েছে গুগল
  • পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণির পরীক্ষা আগের মতোই চলবে
  • চার লেনের উদ্বোধন ২ জুলাই, সাড়ে চার ঘণ্টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম
  • বাবুল আক্তারকে ১৫ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ
  • ঢাকা মেট্রোরেলের নির্মাণ কাজ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হচ্ছে ২৬ জুন থেকে
  • হজ ফ্লাইট শুরু হবে আগামী ৪ আগস্ট
  • জামায়াতের লোগো পরিবর্তন ?
  • শুভ জন্মদিন দৈনিক যায়যায়দিন
  • Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
    Email
    Print